ইসলামে নারীদের মযাদা

Ruksana akhter 5 months ago Views:299

কোন ফুল জান্নাতের


 জান্নাতের কিছু ফুল গাছ যেগুলো পৃথিবীতে পাওয়া যায়


সেভাবে স্পেশালি কোন ফুলের নাম তো কোথাও পাওয়া যায়নি তবে আমি যেটা জানি সেটা হলো:

 হযরত মুহাম্মদ (সা.) ছিলেন আল্লাহর নবী একই সঙ্গে একজন মানুষ। এই উভয় পরিচয়ে তিনি সত্য ও সুন্দরকে ভালোবেসেছেন। রাসূল (সা.) সুগন্ধি পছন্দ করতেন। তিনি ঈদের জামায়াতে, জু'মার দিন খুশবো ব্যবহার করতে বলেছেন। বলেছেন, ‘‘ছেলেদের জন্য সুঘ্রাণ আর মেয়েদের জন্য রঙ।’’ সুবাস ও রঙের উৎস হল ফুল। রাসূল (সা.) ফুল ভালোবাসতেন। আর তিনি তো ফুলের মতই একজন মানুষ ছিলেন। একজন কবি রাসূল (সা.)-এর একটি বিখ্যাত হাদিসের কাব্যরূপ দিয়েছেন এভাবে-

‘‘জোটে যদি মোটে একটি পয়সা

খাদ্য কিনিও ক্ষুধার লাগি

জোটে যদি মোটে দু'টি পয়সা

অর্ধেকে তার ফুল কিনে নিও

হে অনুরাগী।’’

রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর ভাষা থেকে হযরত আবু উসমান আন নাহদি (রা.) বলেন, রাসূল (সা.) বলেছেন, যদি কাউকে ফুল উপহার দেয়া হয়, সে যেন তা ফিরিয়ে না দেয়। কেননা তা জান্নাত থেকে আনা হয়েছে। (তিরমিযী শরীফ) হাদিসের শ্রেষ্ঠতম গ্রন্থ বুখারী শরীফে উল্লেখ রয়েছে, রাসূল (সা.)-এর অভ্যাস ছিল, কেউ তাঁকে ফুল উপহার দিলে তিনি তা ফিরিয়ে দিতেন না। মহানবী (সা.) জান্নাতের রূপ-সৌন্দর্য, সবুজ-সতেজ বাগ-বাগিচার বর্ণনা দিতে গিয়ে বলেছেন, যখন উপযুক্ত ব্যক্তি জান্নাতের দরজার কাছে যাবে তখন মন জুড়ানো, চোখ ধাঁধানো একটি ফুল দেখতে পাবে। সেই ফুলের ঘ্রাণে বিমোহিত হবে। সে অপলক দৃষ্টিতে নীরব মনে চেয়ে থাকবে (বুখারী শরীফ)।

ফুল সুন্দর; তাই তো ফুলকে ভালোবাসেন হযরত মোহাম্মদ (সা.)। রাসূল (সা.) কুরআনের হাফেজ ও শিক্ষার্থীকে ফুলের সাথে উপমা করেছেন। তিনি শিশুদের ভালোবাসতেন। তিনি শিশুদের বেহেস্তের ফুল, প্রজাপতির সাথে তুলনা করেছেন।

প্রিয় শিশুরা! আল্লাহর রাসূল (সা.)-এর হৃদয়ে ফুলের প্রতি এতো ভালোবাসা আমাদের হৃদয়-মনকেও উদ্বেলিত করে। তোমরা নিশ্চয়ই মহানবী (সা.)-এর আদর্শকে ভালোবেসে নিজের জীবন আলোকিত করবে। ফুলের মত মানুষ হয়ে গড়ে উঠবে।



Comment


Recent Post